তানিয়া বন্দ্যোপাধ্যায় পাল ● কলকাতা

দেশে করোনা সংক্রমণের গ্রাফ দেখে কিছুটা স্বস্তি পাচ্ছেন বিশেষজ্ঞ মহল। কিন্তু চিন্তা বাড়াচ্ছে পশ্চিমবঙ্গ। বিশেষজ্ঞদের আশঙ্কা, রাজ‍্য করোনা অতিমারির তৃতীয় ঢেউয়ের মুখে দাঁড়িয়ে রয়েছে। সতর্কতা অবলম্বন না করলে ফল আরও মারাত্মক হতে পারে।

সেপ্টেম্বরের দ্বিতীয় সপ্তাহের পর থেকেই রাজ‍্যে করোনা সংক্রমণ বাড়ছে। গত কয়েক দিন রাজ‍্যে দৈনিক সংক্রমণ হয়েছে চার হাজারের বেশি। স্বাস্থ্য দফতরের দেওয়া শেষ রিপোর্ট অনুযায়ী, রাজ‍্যে একদিনে ৩৯০০ জনের বেশি মানুষ করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। দৈনিক ৬০ জনের বেশি মানুষ করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা যাচ্ছেন। এখনও পর্যন্ত রাজ‍্যে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ২ লক্ষ ছাড়িয়েছে। চার হাজারের বেশি মানুষ মারা গিয়েছেন।

এ দিকে রাজ‍্যে দৈনিক করোনা পরীক্ষার সংখ‍্যা কমানো হয়েছে বলেই অভিযোগ তুলছেন স্বাস্থ্য কর্তাদের একাংশ। তাঁদের অভিযোগ, সংক্রমণের হার কম দেখানোর জন‍্য করোনা নমুনা পরীক্ষার সংখ‍্যা কমানো হয়েছে। বিশেষজ্ঞদের মতে, সাধারণ মানুষকে আরও সতর্ক হতে হবে। আগামী কয়েক সপ্তাহ রাজ‍্যের জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ। করোনা পরিস্থিতিতে সাধারণ মানুষের সচেতনতা সবচেয়ে জরুরি। সতর্কতাই সংক্রমণ রুখতে পারে।

উৎসবের মরসুমে মানুষ ভিড় করেছেন। অনেকেই বিধি-নিষেধ মেনে চলেননি। কিন্তু এখন সতর্ক হতে হবে। বাজারে শারীরিক দূরত্ব মেনে চলতে হবে। রাস্তায় বেরোলে মাস্ক অবশ‍্যই ব‍্যবহার করতে হবে। নাক ও মুখ ঠিকমতো ঢেকে না রাখলে করোনা সংক্রমণ থেকে বাঁচা কঠিন। আর মাস্কের ক্ষেত্রে ডিজাইনিং কাপড়ের মাস্ক চলবে না। ঠিকমতো ত্রিস্তরীয় মাস্ক পরতে হবে। তবেই কাজ হবে। রাজ‍্যবাসী সতর্ক না হলে আগামী কয়েক দিনে রাজ‍্যে করোনা কয়েক গুণ বাড়বে। ন্যূনতম স্বাস্থ্য পরিষেবা পাওয়াও কঠিন হয়ে দাঁড়াতে পারে। তাই সতর্কতাই রাজ‍্যকে করোনার তৃতীয় ঢেউ থেকে বাঁচাতে পারে বলে মত বিশেষজ্ঞদের।

(ফিচার ছবিটি গুগল থেকে নেওয়া)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here