শুভদীপ ভট্টাচার্য ● বহরমপুর

জেলবন্দি সারদা কর্তা সুদীপ্ত সেনের চিঠির অভিযোগের জবাব দিলেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি তথা বহরমপুরের সাংসদ অধীর চৌধুরি। শনিবার সারদা কর্তা সুদীপ্ত সেনের একটি চিঠি প্রকাশ্যে এসেছে। সেখানে তিনি দাবি করেছেন, বিমান বসু,  শুভেন্দু অধিকারী,  সুজন চক্রবর্তী ও অধীর চৌধুরি নানা সময়ে তাঁর কাছ থেকে টাকা নিয়েছেন। আর তা প্রকাশ্যে আসতেই রাজ‌্যজুড়ে শুরু হয়েছে রাজনৈতিক তরজা।

রবিবার বহরমপুরে জেলা কংগ্রেস অফিসে প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরি বলেন,  ‘‘রাজনীতি করি, দুর্নীতি নয়। গলা উঁচু করে কথা বলি। পার্লামেন্ট হোক বা বাইরে অধীর চৌধুরি ভয় পায় না। নরেন্দ্র মোদি হোক বা মমতা ব‌্যানার্জী চোখে চোখ রেখে কথা বলার হিম্মত রাখি।’’

সামনেই বিধানসভা ভোট। শাসক-বিরোধী তরজাতে কেবল তৃণমূল আর বিজেপিরই রমরমা। সেখানে তৃতীয় শক্তি হিসাবে উঠে আসছে বাম কংগ্রেস জোটের কথা। বিকল্প শক্তি হিসাবে জোট সামনে আসতেই তার শীর্ষ নেতৃত্বকে কালিমালিপ্ত করে তৃণমূল ভোটের অঙ্কে এগিয়ে থাকতে চাইছে বলে জানান অধীর চৌধুরি।

চিটফান্ডের তদন্তের দাবিতে কংগ্রেসের আন্দোলন ও সুপ্রিম কোর্টে দরবারের প্রসঙ্গ মনে করিয়ে অধীর চৌধুরী বলেন, ‘‘সিবিআই তদন্তের সময় সুদীপ্ত সেন এইগুলি তাদের না জানিয়ে আজ জানাচ্ছে সাড়ে সাত বছর পরে, বিধানসভা ভোটের মুখে।’’ জেল কর্তৃপক্ষের ভূমিকা নিয়েও তাঁর অভিযোগ, পুলিশ দলদাসের ভূমিকা পালন করছে। এটা তৃণমূলের রাজনৈতিক অভিসন্ধি ও ব‌্যর্থ কৌশল বলেই ব‌্যাখা অধীর চৌধুরির।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here