নিজস্ব প্রতিবেদন

বহরমপুর থেকে কলকাতার দূরত্ব প্রায় ২০০ কিলোমিটার। চিকিৎসা-সহ নানা কাজে প্রতিদিন মুর্শিদাবাদের বহু মানুষকে কলকাতায় ছুটতে হয়। কম খরচে তাঁদের থাকা-খাওয়ার সুবিধার জন্য বাম আমলে রাজারহাটে ‘মুর্শিদাবাদ ভবন’ তৈরির ব্যাপারে উদ্যোগী হয়েছিল মুর্শিদাবাদ জেলা পরিষদ। তৎকালীন মুর্শিদাবাদ জেলা পরিষদ বোর্ড রাজারহাটে ওই ভবন নির্মাণের জন্য হিডকোর কাছ থেকে প্রায় পাঁচ কাঠা জমি নিয়েছিল। এ বারে সেই জমিতেই ‘মুর্শিদাবাদ’ ভবন তৈরির কাজ শুরু করেছে মুর্শিদাবাদ জেলা পরিষদ। ইতিমধ্যে তিনতলা পর্যন্ত ভবন নির্মাণের কাজ শেষ হয়েছে। সম্প্রতি রাজারহাটে ‘মুর্শিদাবাদ ভবন’-এর কাজ সরেজমিনে দেখে এসে এমনটাই জানিয়েছেন জেলা পরিষদের সভাধিপতি মোশারফ হোসেন মণ্ডল।

মুর্শিদাবাদ জেলা পরিষদ সূত্রে জানা গিয়েছে, বছর পনেরো আগে হিডকোর কাছ থেকে প্রায় ৫ কাঠা জমি নিয়েছিল মুর্শিদাবাদ জেলা পরিষদ। দীর্ঘদিন ফাঁকা থাকার পরে কংগ্রেস পরিচালিত জেলা পরিষদ ২০১৫ সালে সেই জমিতে পাঁচিল দেয়। বছর দেড়েক থেকে সেখানে মুর্শিদাবাদ ভবন তৈরির পরিকল্পনা করে তৃণমূল পরিচালিত বর্তমান জেলা পরিষদ। জানা গিয়েছে, জি + চারতলা ভবন তৈরি করা হবে। থাকবে পার্কিং, ডরমেটরি-সহ নানা আকারের থাকার ঘর, সভাকক্ষ। এই ভবনের জন্য খরচ ধরা হয়েছে প্রায় ৭ কোটি ৫৮ লক্ষ টাকা। জেলা পরিষদের সভাধিপতি জানান, জেলা পরিষদের নিজস্ব তহবিল থেকেই ‘মুর্শিদাবাদ ভবন’ তৈরির কাজ চলছে।

মুর্শিদাবাদের বাসিন্দাদের অনেকেই জানাচ্ছেন, নানা কাজে প্রতিদিন বহু মানুষকে কলকাতায় যেতে হয়। অনেক বেশি টাকা দিয়ে হোটেলে থাকতে হয়। ‘মুর্শিদাবাদ ভবন’-এ থাকার সুযোগ পেলে বহু মানুষ উপকৃত হবেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here