নিজস্ব সংবাদদাতা ● বহরমপুর

করোনা হাসপাতাল ও সেফ হোমে কোনও রোগী ভর্তি নেই। মুর্শিদাবাদের দু’টি করোনা হাসপাতালে রবিবার একজন করোনা রোগীও ভর্তি নেই। অন্যদিকে করোনা রোগী না থাকায় জেলার  চালু থাকা পাঁচটি সেফ হোম বন্ধ করে দিয়েছে জেলা স্বাস্থ্য দফতর। সূত্রের খবর রবিবার পর্যন্ত জেলার চার জন করোনা রোগী হোম আইসোলেশনে রয়েছেন এবং জেলার বাইরের হাসপাতালে ১২ জন করোনা আক্রান্ত চিকিৎসাধীন। এমন ঘটনায় স্বস্তিতে মুর্শিদাবাদ জেলা স্বাস্থ্য দফতর।
জেলা স্বাস্থ্য দফতরের এক আধিকারিক জানাচ্ছেন, রাজ্যের সর্বত্র করোনার প্রকোপ কমেছে। তেমন ভাবে মুর্শিদাবাদ জেলাও করোনা শূন্য হতে চলেছে। তবে দ্বিতীয় দফায় করোনার প্রকোপ আসতে পারে ধরে নিয়ে করোনা হাসপাতালগুলি যেমন চালু রাখা হচ্ছে, তেমনই জেলা স্বাস্থ্য দফতর সতর্ক রয়েছে।
জেলা স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, এক সময় মুর্শিদাবাদে দৈনিক ১০০-১৫০ জন করোনা আক্রান্ত হতেন। পরে অবশ্য সংখ্যাটা কমতে থাকে। গোটা ফেব্রুয়ারি মাসজুড়ে জেলায় প্রতিদিন একজন, দু’জন করে করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন। যার জেরে স্বস্তিতে জেলা স্বাস্থ্য দফতর।
জেলা স্বাস্থ্য দফতরের বুলেটিন অনুযায়ী, এ পর্যন্ত জেলায় ১১ হাজার ৩৭৯ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। তাঁদের মধ্যে ১১ হাজার ২১৩ জন করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন। মুর্শিদাবাদে করোনায় ১৫০ জনের মৃত্যু হয়েছে। এই মুহূর্তে জেলার ১৬ জন ‘করোনা অ্যাক্টিভ’ রোগী আছেন। তাঁদের মধ্যে চার জন হোম আইসোলেশনে এবং ১২ জন জেলার বাইরের হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

(ফিচার ছবি গুগল থেকে নেওয়া)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here