মামুন আব্দুল কায়েম ● ডোমকল

বাসের সঙ্গে টোটোর সংঘর্ষে মৃত্যু হল চার জনের। আহত হয়েছেন পাঁচ জন। সোমবার সকালে ডোমকলের ভাতশালা পশুহাট এলাকার ঘটনা। পুলিশ জানিয়েছে, মৃতরা হলেন কল্পনা বিবি (২০), তাঁর মেয়ে ফারজিনা খাতুন (৫), কল্পনার আত্মীয় শরিফা বিবি ও কাটাকোপরার বাসিন্দা টোটো চালক মনিরুল মণ্ডল (২০)। আহত ও মৃতেরা টোটোর যাত্রী।
পুলিশ জানিয়েছে, কল্পনাদের বাড়ি ডোমকলের ঘোড়ামারা গ্রামে এবং শরিফার বাড়ি ডোমকলের সাহাদিয়াড় গ্রামে। ডোমকলের পুরপ্রধান তথা তৃণমূলের ডোমকল বিধানসভার প্রার্থী জাফিকুল ইসলামের অভিযোগ, ‘‘বাসটি বিজেপির ব্রিগেড সভা থেকে ফিরছিল। পুরো ঘটনার জন্য দায়ী ওই বাসের চালক। ঘটনার তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়ার আবেদন জানিয়েছি।’’
পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, এ দিন সকালে বহরমপুরের দিক থেকে বক্সিপুরগামী একটি বাস আসছিল। উল্টো দিক থেকে একটি টোটো আসছিল। ভাতশালা মোড় ছাড়িয়ে পশুহাটের কাছে বাস ও টোটোর সংঘর্ষ হয়। ঘটনাস্থল‌ে মৃত্যু হয় মা ও মেয়ের। বাকি দু’জনকে ডোমকল মহকুমা হাসপাতাল থেকে বহরমপুরে মুর্শিদাবাদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠালে সেখানে তাঁদের মৃত্যু হয়।
ডোমকল-বক্সিপুর রাস্তায় বার বার দুর্ঘটনা ঘটায় ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী। ঘটনার পরে ভাতশালা উত্তপ্ত হতে থাকে। খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে পৌঁছন ডোমকলের এসডিপিও ফারুক মহম্মদ চৌধুরী, ডোমকলের পুরপ্রধান তথা বিধানসভা নির্বাচনের প্রার্থী জাফিকুল ইসলাম। তাঁর গাড়িতেই ঘটনাস্থল থেকে আহত ও মৃতদের দেহ উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানো হয়।
প্রত্যক্ষদর্শী মোমিন শেখ বলেন, “বাসটি দ্রুত গতিতে আর একটি বাসকে ওভারটেক করছিল। সেই সময় টোটোর সামনে ধাক্কা মারে।” স্থানীয় এক বাসিন্দা বলেন, “মদ্যপান করে বাস চালাচ্ছিল চালক। আবার গাড়ির গতিও বেশ ভাল ছিল। যার জেরে এই ঘটনা।”
গত ২৮ ফেব্রুয়ারি একই ধরনের ঘটনা ঘটেছিল ডোমকলের যুগিন্দা আশ্রমের মোড়ে। গরু নিয়ে লছিমন ভ্যান দ্রুত গতিতে এসে একটি গাড়িতে ধাক্কা মারে। এক মহিলার মৃত্যু হয়।
ডোমকলের তৃণমূল প্রার্থী জাফিকুল ইসলাম বলেন, “বিজেপির ব্রিগেডের সভা সেরে বাসটি আসছিল। মদ্যপান করে নাচানাচি করতে করতে এসে টোটোকে সামনাসামনি ধাক্কা মারে। বিজেপিকে এর জবাব দিতে হবে।”
জেলা বিজেপির নেতা শাখারভ সরকার বলেন, ‘‘ব্রিগেডে সভা হয়েছে রবিবার। সেদিন রাতেই সব বাস ফিরে গিয়েছে। ভোটের মুখে প্রচার পেতে তৃণমূল প্রার্থী এমন মিথ্যা অভিযোগ তুলেছেন।’’