রাজা বাগচী বহরমপুর

গঙ্গায় ভেসে যাচ্ছে দেহ! যা দেখে চাঞ্চল্য ছড়াল বহরমপুরে। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রের খবর, মঙ্গলবার দুপুরে বহরমপুরের ফরাসডাঙা ঘাট থেকে এক মহিলার দেহ ভাগীরথীর জলে ভেসে যেতে দেখেন স্থানীয় বাসিন্দারা। কিছুক্ষণ পরেই বহরমপুরের গাঁধী কলোনি এলাকার বাসিন্দারাও দেহটিকে ভেসে যেতে দেখেন। করোনা আবহে গঙ্গায় দেহ ভেসে যেতে দেখে ওই এলাকাতেও চাঞ্চল্য ছড়ায়। স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, গঙ্গার জলই তাঁরা নিত্য প্রয়োজনে ব্যবহার করেন। স্নান থেকে শুরু করে রান্নার কাজেও এই জল ব্যবহার করেন স্থানীয় বাসিন্দাদের একাংশ।
গাঁধী কলোনির বাসিন্দা কালিপদ সরকার বলেন, “করোনার সময় এ ভাবে মৃতদেহ ভাসতে দেখলে তো আতঙ্ক ছড়াবেই। কয়েকদিন আগেও একবার মৃতদেহ ভাসতে দেখা গিয়েছিল। সাধারণ মানুষকে আরও সচেতন হওয়া দরকার। তার সঙ্গে প্রশাসনের নজরদারিও বাড়ানো প্রয়োজন।”
স্থানীয় বাসিন্দাদের একাংশের দাবি, ভাগীরথীর জল থেকে মাছ ধরে তা বিক্রি করা হয়। বিভিন্ন জায়গায় গঙ্গার জলে মৃতদেহ ভাসতে দেখে সাধারণ মানুষ আর সে ভাবে মাছ কিনছেন না। ফলে ক্ষতির মুখে পড়ছেন মৎস্য ব্যবসায়ীরা।
অতিরিক্ত জেলাশাসক (সাধারণ) সিরাজ দানেশ্বর বলেন, “মৃতদেহটি কোথায় থেকে ভেসে আসছিল তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। মানুষ যাতে অযথা আতঙ্কিত না হন, তার জন্য জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সচেতন করা হচ্ছে।”
প্রসঙ্গত, সোমবার রঘুনাথগঞ্জে দুই কিশোরী গঙ্গায় তলিয়ে যায়। এই দেহটি তাঁদের কারও কিনা, সেই বিষয়েও তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।