‘মুর্শিদ ধন হে/কেমনে চিনিব তোমারে’ শাহ আব্দুল করিমের এই লোকগান যখন দোতারা বাজিয়ে আকুল হয়ে ছেলেটি গায়, তখন তার কণ্ঠ,গায়কীর সামনে স্তব্ধ হয়ে দাঁড়িয়ে যেতে হয়। আর যখন ‘একখান পান চাইলাম পান দিলে না/তোমার সনে কিসের পিরিতি’ ধরে, তখন সুরের দুলুনিতে দুলে ওঠে মন। ঘুচে যায় কাঁটাতারের ব্যবধান। রাজশাহীর শিশির বাউল ঘরের পাশের আরশিনগর থেকে সরাসরি এসে বসত গড়ে আমাদের বুকে। এমন মনের মানুষকে তো ‘না চিনিলাম’ বলে রেখে দেওয়া যায় না। বাংলাদেশের সেই সঙ্গীত-প্রতিভাকে চিনতে ও জানতে ‘সাদাকালো’ তার খোঁজ চালায়। সফলও হয়। শিশির বাউলের  সঙ্গে কথা বললেন সুদীপ জোয়ারদার

 

সাদাকালো- তোমার পুরো নাম সাব্বির আহমেদ শিশির। কী নামে ডাকব তোমাকে? সাব্বির না শিশির?

শিশির বাউল- বাড়িতে সবাই শিশির বলেই ডাকে।

সাদাকালো- বেশ। শিশির তোমার এখন বয়স কত?

শিশির- ২০০৫ সালের ১৩ এপ্রিল আমার জন্ম। সেই হিসাবে আমার এখন ষোলো চলছে।

সাদাকালো- তুমি এখন কোন ক্লাসে পড়ছ?

শিশির- আমি এখন নবম শ্রেণিতে পড়ি।

সাদাকালো- কোন স্কুল তোমার?

শিশির- বাঘা উচ্চ বিদ্যালয়।

সাদাকালো- এটা কোথায়?

শিশির- এটা রাজশাহীতে যেখানে আমরা থাকি, সেই বাঘা উপজেলাতেই।

সাদাকালো- বাবা কী করেন?

শিশির- আব্বু শিক্ষক।

সাদাকালো- তোমার স্কুলেই কি?

শিশির- না, অন্য স্কুলে।

সাদাকালো- এত অল্প বয়সে তুমি এত সুন্দর লোকগান গাইছ, লোকগানে এলে কীভাবে?

শিশির- তখন আমার খুব অল্প বয়স। আব্বুর সঙ্গে গিয়েছিলাম কুষ্টিয়ার ছেউড়িয়ায় লালনের আখড়ায়। সেখানে নানা রকম বাউল গান শুনে ওই বয়সেই মজে যাই। লোকগান গাওয়ার ইচ্ছে মাথায় আসে। আব্বুও উৎসাহ দিলেন। আমরা লালন শাহী মতবাদের মানুষ। আব্বুর যিনি দীক্ষাগুরু তাঁর শিষ্যের কাছেই শিখতে শুরু করলাম। পরে অনেক ওস্তাদের কাছে গান-বাজনার তালিম নিয়েছি।

সাদাকালো- গানবাজনা পুরোদমে শুরু করলে কবে থেকে?

শিশির- ওই তো, ২০১৩।

সাদাকালো- এত অল্প সময়েই তুমি পরিণত গায়ক। বাড়িতেও কি কেউ গান করেন?

শিশির- না, বাড়িতে আব্বু, আম্মু গান করেন না। ওঁরা গানের শ্রোতা।

সাদাকালো- তুমি ওই যে গানটা, ‘একখান পান চাইলাম’ গাইছ, ওটা কী বাজিয়ে? ওটা তো দোতারা নয়।

শিশির- না ওটা দোতারা নয়, ওটা উকুলেলে?

সাদাকালো- উকুলেলে!

শিশির- জী। ওটা আসলে একটা পর্তুগিজ বাদ্যযন্ত্র। ওটা দুভাবে বাজানো যায়। কর্ড ভিত্তিক, আর দোতারার মতো করে।

সাদাকালো- তোমার একটা ভিডিয়োতে দেখছিলাম, তুমি সম্ভবত ওই যন্ত্রটাই বাজানোর কলা কৌশল ব্যাখ্যা করছিলে।

শিশির-  জী, ওটা উকুলেলেই। অনেকেই বলেছিলেন,দোতারা স্টাইলে উকুলেলে বাজানো শেখাতে। সেজন্যই ওটা আমার এক ক্ষুদ্র প্রয়াস।

সাদাকালো- দোতারা, উকুলেলে ছাড়া আর কী কী যন্ত্র তুমি বাজাতে জানো?

শিশির- হারমোনিয়াম, ম্যান্ডোলিন, তবলা, কি বোর্ড।

সাদাকালো- এত ভাল দোতারা তুমি কোথায় বাজাতে শিখেছ?

শিশির- আমার প্রথম ওস্তাদ শ্রদ্ধেয় সাহাবুল বাউলের কাছে ক্ল্যাসিকাল বেসড বাউলের পাশাপাশি দোতারা বাজানো শিখেছি।

সাদাকালো- দোতারা বাজিয়ে কোনও সাফল্য পেয়েছ?

শিশির- জী। গত বছর ফেব্রুয়ারি মাসে বাংলাদেশ স্কাউটস থেকে জাতীয় পর্যায়ে ‘যন্ত্রসঙ্গীত’ বিষয়ে আমি প্রথম হই এবং স্বর্ণপদক পাই। তারপর ওই বছরেই মে মাসে ‘জাতীয় শিশু পুরস্কার’ প্রতিযোগিতায়  ‘যন্ত্র সঙ্গীত’ পর্যায়ে দোতারা বাজিয়ে প্রথম হই এবং রাষ্ট্রপতির কাছ থেকে স্বর্ণপদক লাভ করি।

সাদাকালো- আর ভোকালে?

শিশির- ওই যে ‘জাতীয় শিশু পুরস্কার প্রতিযোগিতা’র কথা বললাম, ওখানে ‘লোকসঙ্গীত’ পর্যায়ে আমি  তৃতীয় হয়ে ব্রোঞ্জ মেডেল পেয়েছিলাম। এ ছাড়া গত বছরে আমার সঙ্গীত জীবনে আরও একটা প্রাপ্তি আছে। বাংলাদেশ বেতারের রাজশাহী কেন্দ্রে অডিশন দিয়ে সফল হয়েছি। বর্তমানে আমি রাজশাহী বেতার কেন্দ্রে লোকসঙ্গীত ও যন্ত্রসঙ্গীত বিভাগে ‘জুনিয়র আর্টিস্ট’ হিসাবে অনুষ্ঠান করি।

সাদাকালো- গানে এতটা সময় দিলে লেখাপড়ায় কোনও সমস্যা হয় না?

শিশির- ক্লাস নাইনে আমার রোল নম্বর এক। আমি পিইসি ও জেএসসিতে জিপিএ ফাইভ-সহ বৃত্তি পেয়েছি। গানের সময় গান, পড়ার সময় পড়া। অসুবিধে হয় না।

সাদাকালো- খেলাধুলো করা হয়?

শিশির- (হাসতে হাসতে) সে ভাবে নয়। আমি গানবাজনার সঙ্গেই খেলি।

সাদাকালো- স্টেজ শো করো?

শিশির- মাঝেসাঝে।

সাদাকালো- এপার বাংলায় এসে গান করতে ইচ্ছে হয় না?

শিশির- জি বাংলার সা রে গা মা পা-তে অডিশন দিয়ে সফল হতে চাই।

সাদাকালো- তোমার প্রিয় শিল্পী কারা? ভারত এবং বাংলাদেশে?

শিশির- আমার প্রিয় শিল্পী প্রচুর। বলে শেষ হবে না। যখন যাঁর গান ভাল লাগে তাঁর গানই শুনে যাই। স্বর্গীয় কালিকাপ্রসাদ দাদার গান ভাল লাগত। আমার ‘মুর্শিদ ধন হে’ গানটার পিছনে রয়েছে কালিকাপ্রসাদ দাদার পরোক্ষ অনুপ্রেরণা।

সাদাকালো- পুরোনো লোকসঙ্গীত কেমন লাগে?

শিশির- খুব ভাল লাগে। আব্বাসউদ্দিন, তারপরে পূর্ণদাস বাউল, কার্তিকদাস বাউল।

সাদাকালো- এই করোনার সময়টা কীভাবে কাটাচ্ছ?

শিশির- আমার ফেসবুক পেজে ‘সংগীতের হাওয়া’ নামে একটা লোকগানের অনলাইন আসরের আয়োজন করেছিলাম। বিভিন্ন জায়গার লোকসঙ্গীত শিল্পীরা ওখানে গান গেয়েছেন। ওটা এখন একটু বন্ধ রয়েছে, ব্যস্ততার জন্য। তবে আবার চালু হবে।

সাদাকালো- তোমার ইউটিউব চ্যানেলে অনেক গান আপলোড করেছ। এর মধ্যে তোমার প্রিয় কয়েকটা গান ‘সাদাকালো’-র পাঠকদের জন্য যদি বলো।

শিশির- ‘কেমনে চিনিব তোমারে’, ’আমরা বহু নামে ধরাধামে’, ’বাবা তোমার দরবারে’, ‘কলিজা ভুনা’।

সাদাকালো- তোমার ‘একখান পান চাইলাম’, ‘হৃদমাঝারে রাখব’ বা ১৫ অক্টোবর যেটা দিয়েছ, ’এমন যদি  হত’ তরুণ প্রজন্মের শুনতে  কিন্তু বেশি ভাল লাগবে। লোকগানের এমনিতেই একটা চাহিদা ওদের কাছে রয়েছে।

শিশির- জী।

সাদাকালো- তুমি অনেক সময় দিয়েছ, অভিনন্দন তোমাকে। আরও এগিয়ে যাও। আর তোমার সম্পর্কে ‘সাদাকালো’-র  পক্ষ থেকে এটাই বলতে পারি ‘তোমায় হৃদমাঝারে রাখব, ছেড়ে দেব না।’

শিশির- ধন্যবাদ আপনাকে। দোয়া করবেন, যাতে আরও এগিয়ে যেতে পারি।

সাদাকালো- অনেক দোয়া, ভালবাসা, অভিনন্দন।

 

পাঠকদের জন্য শিশির বাউলের গাওয়া কয়েকটি গানের লিঙ্ক দেওয়া হল-

https://youtu.be/VX2Z2CuxRoY

https://youtu.be/UuQ7vme9OBI

https://youtu.be/Wt9L8c-synk?list=RDUuQ7vme9OBI

https://youtu.be/rFf7go5Nb4o?list=RDUuQ7vme9OBI

https://youtu.be/IC6KZ3PHqBE?list=RDUuQ7vme9OBI

 

2 COMMENTS

  1. ভারতের মত জায়গা থেকে “সাদাকালো” পত্রিকা তে যখন ‘শিশির বাউল’কে প্রতিবেদনে ছাপাই তখন বাবা-মা হিসেবে আমরা গর্বিত ও অনুপ্রাণিত হই। মন থেকে বলতে ইচ্ছে করে এগিয়ে যাও বহুদুরে এবং জয় করে আনো সকল মানুষের ভালোবাসা। ধন্যবাদ “সাদাকালো” কে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here